ওখানে রাসূল (সাঃ)এর ছবি সংরক্ষিত ছিল

From Sunnipedia
Jump to: navigation, search
মুহাম্মাদ (সঃ) এর মুজিজা সমূহ 1



























  • ওখানে রাসূল (সাঃ)এর ছবি সংরক্ষিত ছিল


হযরত যুবায়ের ইব্ন মুতয়িম বর্ণনা করেন, আল্লাহ্ ত’আলা যখন রাসূলুল্লাহ্ (সা) কে প্রেরণ করলেন এবং নবুওয়াতের বিষয়টি প্রকাশ লাভ করল, তখন আমি সিরিয়ার সফরে গেলাম। সেখানে বুসরায় অবস্থানকালে কিছু খৃস্টান আমার কাছে এসে জিজ্ঞেস করল, ‘তুমি কি হেরেমের বাসিন্দা ?’ বললাম,হ্যাঁ। তারা বলল, তোমাদের যিনি নবুওয়াতের দাবি করেছেন তাঁকে চেন ? বললাম, হ্যাঁ, চিনি।

তারপর তারা আমাকে হাত ধরে একটা গির্জায় নিয়ে গেল। সেখানে অনেকগুলো চিত্র টানানো ছিল। তারা আমাকে বলল, ‘দেখ তো, ওখানে সে নবীর চিত্র আছে কিনা।’ আমি চিত্রগুলো দেখলাম। কিন্তু রাসূলুল্লাহ্ (সা)-এর কোন ছবি সেখানে পেলাম না। বললাম, এখানে তাঁর কোন ছবি নেই।

তারা আমাকে তারপর একটি আরও বড় গির্জায় নিয়ে গেল। এখানে আরও বেশি চিত্র টানানো ছিল। তারা বলল, দেখ তো এখানো তাঁর চিত্র আছে কি না। আমি দেখলাম একটা চিত্রে সত্যিই রাসূল (সা)-এর আকৃতি রয়েছে। হযরত আবূ বকরের চিত্রও তাঁর পিছনে বিদ্যমান।

তারা জিজ্ঞেস করল, এখানে কি তাঁর চিত্র পেয়েছ ? বললাম, হ্যাঁ। তারা ঐ চিত্রটির দিকে ইশারা করে বলল, এটাই কি ? বললাম, হ্যাঁ। আমি সাক্ষ্য ইনিই তিনি। ওরা বলল, সতার পিছনে যে দাঁড়িয়ে আছে তাকে চিন? বললাল, হ্যাঁ, চিনি। খৃস্টানরা বলল, আমরা সাক্ষ্য দেই যে, ইনি তোমাদের নবী। আর পিছনে তাঁর পরবর্তী প্রতিনিধি। (বুখারী ও বায়হাকী)

অন্য সনদে তিবরানী হযরত যুবায়ের ইব্ন মুতায়িমের এরুপ রেওয়ায়েত উদ্ধৃত করেছেন যে, রাসূল (সা)-এর আকৃতি চিত্রে দেখে মনে হলো যে, কোন বস্তু কোন বস্তুর সাতে এত অধিক সাদৃশ্যপূর্ণ হতে আমি আর কক্ষণও দেখিনি। তাঁর উচ্চতা ও উভয় কাঁধের প্রশস্ততা অবিকল এক।

খৃস্টানরা বলল, ‘তুমি কি আশস্কা কর যে, লোকেরা তাঁকে মেরে ফেলবে ?’বললাম, ‘মনে হয় ইতিমধ্যেই তাঁকে ওরা মেরে ফেলেছে।’ তারা বলল, আল্লাহর কসম! এ নবীকে ওরা খুন করতে পারবে না। যে তাঁকে খুন করতে ইচ্ছা করবে সে নিজেই খুন হবে। তিনি নবী। অবশ্যই তিনি বিজয়ী হবেন।

তথ্যসূত্র

  • রাসুলুল্লাহ (সঃ) এর জীবনে আল্লাহর কুদরত ও রুহানিয়াত (লেখকঃ মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুল গফুর হামিদী, প্রকাশকঃ ইসলামিক ফাউন্ডেশন, বাংলাদেশ)