ছতর ঢাকা

From Sunnipedia
Jump to: navigation, search

ছতর অর্থ গুপ্ত অংগ। এ ঢেকে রাখা ফরজে দায়েমী। অর্থাৎ গুপ্ত অংগ সব সময় ঢেকে রাখা ফরজ।

  • পুরুষের নাভীর নীচ হতে দু’হাটুর নীচ পর্যন্ত ছতর। এ সব সময় ঢেকে রাখা ফরজ।
  • স্ত্রীলোকের মুখমন্ডল, দুহাতের কবজি এবং দুপায়ের গোড়ালী বাদে মাথা হতে পা পর্যন্ত শরীরের সকল অংগ ছতর। নামাজের মধ্যে সব সময় ঢেকে রাখা ফরজ।
  • ছতরের ফরজে দায়েমীর অর্থ বিশেষ সময় ব্যতীত সব অবস্থায় সব জায়গায় ঢেকে রাখা। যেমন- চলাফেরা, খাওয়া পেওয়া, শোয়া, বসা, ঘুমানো, নামাজের সময় এমনকি পেশাব পায়খানার সময়ও ঢেকে রাখা।
  • পুরুষের নাভীর নীচ হতে উরুর হাড় পর্যন্ত একটি অংগ। উরু হতে হাটু পর্যন্ত দুটি রান দুটি অংগ। লিংগ একটি অংগ। অন্ডকোষদ্বয় দুই অংগ।
  • স্ত্রীলোকের দুকান দু’অংগ, দু’স্তন দু’অংগ, দু’হাত দু’অংগ, মলদ্বার আলাদা একটি অংগ। পেশাবের দু’দ্বার দু’অংগ, পিঠ এক অংগ, পেট এক অংগ, রান এক অংগ, হাটু থেকে পায়ের নলা পর্যন্ত এক অংগ। নামাজের মধ্যে তিনবার ‘ছুবহানাল্লাহ’ পড়া পরিমাণ সময় কোন এক অংগের চার ভাগের এক ভাগের বেশী আলগা হয়ে গেলে নামাজ ফাছেদ বা নষ্ট হবে। এমন কি দু’তিন অঙ্গের কিছু কিছু অঙ্গ এক সাথে আলগা হয়ে গেলে সব মিলিয়ে উহাদের ছোট অংগটির চার ভাগের এক ভাগের বেশী হলে এবং তা তিন তছবিহ পড়া পরিমান সময় আলগা থাকলে নামাজ ফাছেদ হবে। যদি এ সময়ের আগে তা ঢেকে ফেলে তবে নামাজ ফাছেদ হবে না।
  • যদি কাপড় এমন পাতলা হয় যা পরার পরেও শরীর দেখা যায় তবে ঐ কাপড় পরে নামাজ পড়লে নামাজ ফাছেদ হবে।
  • নামাজ ফাছেদের বেলায় স্ত্রী ও পুরুষের একই হুকুম।
লক্ষ্য রাখুনঃ
  • স্ত্রীলোকের তিন কাপড় অর্থাৎ পায়জামা, জামা ও ওড়না পরে নামাজ পড়া ছুন্নাত।
  • পুরুষের লুঙ্গি, জামা ও পাগড়ী পরে নামাজ পড়া ছুন্নাত। শুধু পায়জামা পরে নামাজ পড়া মাকরুহ।
  • যদি স্ত্রীলোকের শাড়ী কাপড় পরে নামাজ পড়ে তবে মুখমন্ডল হাতের কবজি ও পায়ের গিরা ব্যতীত সমস্ত শরীর ঢেকে রাখতে হবে। ঢেকে রাখা ফরজ।
  • মেয়েদের ছেড়ে দেয়া চুলের চার ভাগের একভাগ কাপড়ের বাইরে বের হলে নামাজ ফাছেদ হবে। খোপা বাধা চুলের চার ভাগের একভাগ বের হলেও নামাজ ফাছেদ হবে।

তথ্যসূত্র

  • নামাজ প্রশিক্ষণ (লেখকঃ মাহবুবুর রহমান, প্রাক্তন উপাধ্যক্ষ, প্রতাপনগর আবূবকর সিদ্দিক ফাজিল মাদ্রাসা, সাতক্ষীরা)