তোমরা তোমাদের পূর্ববর্তীদের মতো আল্লাহ্‌কে স্মরণ করিবে

From Sunnipedia
Jump to: navigation, search

অতঃপর যখন তোমরা হজ্জের অনুষ্ঠানাদি সমাপ্ত করিবে তখন আল্লাহ্‌কে এমনভাবে স্মরণ করিবে যেমন তোমরা তোমাদের পিতৃপুরুষগণকে স্মরণ করিতে, অথবা তদপেক্ষা অভিনিবেশ সহকারে।

— সুরা বাকারা, আয়াত ২০০

এখানে সরব জিকিরের কথা বলা হয়নি। বলা হয়েছে অত্যধিক জিকিরের কথা। আলেমগণের ঐকমত্য এই যে, গোপন জিকিরই উত্তম এবং অতি উচ্চঃস্বরে জিকির বেদাত। তবে কোনো কোনো উচ্চঃস্বরে জিকির অত্যাবশ্যক। যেমন- আজান, ইক্বামত, তক্বীর, তাশরীক ইত্যাদি। এ ছাড়া নামাজে ইমামের অজুভঙ্গ হলে তাঁকে উচ্চঃস্বরে তক্‌বীর বলতে হয়। মোক্তাদির অজু ভঙ্গ হলে তাকে উচ্চঃস্বরে ‘সুবহানালাহ্’ বলে মসজিদ থেকে বেরিয়ে যেতে হয়। হজ্বের সময় উচ্চঃস্বরে বলতে হয় লাব্বাইক, আলাহুম্মা লাব্বাইক......ইত্যাদি। নিম্নস্বরের জিকির অথবা গোপন জিকিরই প্রকৃত জিকির। অতি উচ্চঃস্বরে জিকির করা বেদাত। একথাটিও প্রণিধাননীয় যে, সরবতা ও নীরবতার মধ্যে যেহেতু দৃশ্যত দ্বন্দ্ব দেখা দিয়েছে, সেহেতু নীরবতাই অধিকতর গ্রহণযোগ্য হওয়াই সমীচীন। তাই গোপন জিকিরই (জিক্রে খফি) উত্তম। সাহাবায়ে কেরাম এবং তাবেয়ীগণের ঐকমত্য ছিলো নীরব জিকিরের পক্ষে।[1]

তথ্যসূত্র

  1. আল্লাহ্‌র জিকির (লেখকঃ মুহাম্মাদ মামুনুর রশীদ)