নামাজিদের এবাদতে এবং অজিফায় বাধা প্রদান

From Sunnipedia
Jump to: navigation, search

মুসল্লীরা নামাজে, তেলায়াতে বা অজিফায় লিপ্ত থাকলে মসজিদে সরবে সুরা তেলাওয়াত করা, জিকির করা, নামাজিদের নামাজে বিঘ্ন সৃষ্টি করা নিষিদ্ধ। এমতাবস্থায় সজোরে বয়ান করা এবং বয়ানের জন্য কোন এলান বা ঘোষণা দেওয়া আরও নিষিদ্ধ। মসজিদে নামাজে (জিকিরে) বাধা দেওয়ার যত পন্থা হতে পারে সে সবগুলোই হারাম । তন্মধ্যে প্রকাশ্য পন্থা এই যে, মসজিদে গমন করতে বা সেখানে নামাজ ও খফি জিকির আজকার করতে এমন এবাদত বন্দেগীতে পরিস্কার ভাষায় নিষেধাজ্ঞা প্রদান করা । দ্বতীয় পন্থা এই যে, মসজিদে হট্টগোল করে অথবা আশে-পাশে গানবাজনা করে মুসল্লীদের নামাজ ও জিকরের বিঘ্ন সৃষ্টি করা আরও অবৈধ কর্ম এবং শক্ত গুনাহ্ ।

এমনিভাবে নামাজের সময় মুসল্লীরা যখন নামাজ, তসবিহ ইত্যাদিতে নিয়োজিত থাকেন তখন মসজিদে ফজরের নামাজের জামায়াতের পরে বা যে কোন ওয়াক্তের ফরজ নামাজের জামায়াতের পরে সরবে এবং সমষ্টিগতভাবে সূরা হাশরের শেষ ৩ আয়াত অথবা যে কোন তেলাওয়াত করা এবং সজোরে জিকির করা নামাজিদের বা এবাদত কারীদের নামাজে এবং এবাদতে বাধা বিঘ্ন সৃষ্টি করে, মূলত সে বাধাদান কারীদেরই অন্তুর্ভুক্ত হয় । এ কারনেই ফিকাহ-বিদ গণ এ বিষয়গুলোকে নাযায়েজ আখ্যা দিয়েছেন ।

لَايَقْراُ جَهْرًا عِنْدَالْمُشْتَغِلِيْنَ بِالْاَعْمَالِ অর্থঃ কোন আমলকারী ব্যক্তি তার আমল অজিফায় লিপ্ত থাকা কালে তার নিকট উচ্চস্বরে তেলাওয়াত এবং জিকির নিষিদ্ধ ।

— ফতোয়ায় আলমগীরি, এমদাদিয়া ৪র্থ খন্ড, ৫৮ পৃঃ

তেমনি একজন খফী জিকির কারীর নিকট কোন উচ্চসরে তেলাওয়াতকারী সরবে তেলাওয়াত বা যে কোন সরব জিকির করবে না । এটাই আদব ।

— আলমগীরি

যখন কোন এবাদতকারী বা মুসল্লী নামাজ, তসবিহ্ অথবা নামাজিগণ জুম্মার আরবী খুতবা শ্রবণ ইত্যাদিতে ব্যস্ত থাকে তখন মসজিদে নিজের জন্য অথবা কোন ধর্মীয় কাজের জন্য চাঁদা সংগ্রহ করাও নিষিদ্ধ।

— মাআরেফুল কোরআন পৃঃ ৫৭

ফরজ নামাজের পর দোয়া করা শুধু সেই সকল ফরজ নামাজের সাথে সংশ্লিষ্ট নয় যারপর কোন সুন্নাত নামাজ নাই বরং সমস্ত ফরজ নামাজের পর দোয়া করা যায় । তার মধ্যে সুন্নাত থাক বা না থাক। তবে ফরজের পর সুন্নত থাকলে সংক্ষেপে মুনাজাত করে সুন্নাত পড়বে দীর্ঘ মুনাজাত সুন্নাতের পরে করবে যত ইচ্ছা করা যাবে ।

— আলমগীরি, বাহারে শরিয়াত- ১৯৯১ পৃঃ, জখিয়াতুজ্জাফর- ৫০পৃঃ, মুসলিম শরীফ

[1]

তথ্যসূত্র

  1. প্রশ্নোত্তরে দোয়ার আহ্‌কাম (লেখকঃ মাওলানা মুহাম্মাদ রফিকুল ইসলাম, এম, এম) (ক্রয় ০১১৯৯৪৩৫৭৩৮)