এই সুন্নিপিডিয়া ওয়েবসাইট পরিচালনা ও উন্নয়নে আল্লাহর ওয়াস্তে দান করুন
বিকাশ নম্বর ০১৯৬০০৮৮২৩৪

ঈদে মিলাদুন্নবী (সঃ) * কারবালার ইতিহাস * পিস টিভি * মিলাদ * মাযহাব * ইলমে গায়েব * প্রশ্ন করুন

বই ডাউনলোড

পুরুষ লোকের পেশাবের নিয়ম

From Sunnipedia
Jump to: navigation, search
পেশাব
  • পুরুষ লোকের পেশাবের নিয়ম

  • পেশাবের জন্য একটি কুলুখ (মাটির ঢেলা, সুতী কাপড়ের টুকরা অথবা টয়লেট পেপার) বদনা ও গামছা বা তোয়ালে নিন।
  • মাথা টুপি অথবা অন্য কিছু দিয়ে ঢেকে রাখুন। (ছুন্নাত) কিছু না থাকলে ডান হাত মাথায় রাখুন। খালি মাথায় ও খালি পায়ে কখনো পেশাব পায়খানা করবেন না। করা মাকরুহ।
  • পেশাবখানা অথবা আড়ালযুক্ত জায়গায় প্রথমে বাম পা তারপর ডান পা রাখুন। (ছুন্নাত)
  • কুলুখ বা বদনা ডান পাশে রাখুন। (ছুন্নাত)
  • পড়ুনঃ

আল্লাহুম্মা ইননি আউযুবিকা মিনাল খুবছি ওয়াল খাবায়িছ।

অর্থঃ হে আল্লাহ আমি তোমার কাছে শয়তান ও দুষ্টু জেন হতে পানাহ চাইতেছি। (ছুন্নাত)

  • গণপেশাবখানা হলে আগে কিছু পানি ঢেলে দিন। গণরিয়ার জীবানু থাকলে সরে যাবে। গণরিয়ার জীবানু দেড় দুফুট পর্যন্ত লাফিয়ে উঠে অঙ্গে ঢুকে যায় ।
  • বসার সময় উত্তর দক্ষিন মুখ করে বসুন। (ছুন্নাত) কেবলার দিকে মুখ করে অথবা কেবলাকে পিছনে রেখে বসবেন না। বসা মাকরুহ।
  • বসার আগে কাপড় উচা করবেন না। করা মাকরুহ। কেবল মাত্র সামনের কাপড় উচা করুন।
  • দু’হাটু ঢেকে বসুন। (ফরজ)
  • পেশাবের ছিটা না লাগে সে দিকে বিশেষভাবে লক্ষ্য রাখুন। পেশাবের নাপাকী পরহেজ না করলে হাদীছ অনুযায়ী কবরের আযাব হবে।
  • পেশাব শেষে বাম হাত দিয়ে কুলুখ নিন।
  • উঠে দাড়ান।
  • তোয়ালে বা গামছার এক মাথা ঘাড়ে ও আর এক মাথা হাটুর নিচ পর্যন্ত ছেড়ে দিন। চলাফেরা করুন। এমনভাবে চলুন যেন লোকের নজরে দৃষ্টিকটু বা বেহায়া মনে না হয়।
  • পেশাব সমপূর্ন বের না হওয়া পর্যন্ত হাটুন।
  • প্রয়োজনে উঠ্‌ বস বা গলা খাকরাইতে পারেন।
  • দৃষ্টিকটু না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখুন।
বিশেষভাবে খেয়াল রাখুনঃ
  • পুরুষ অঙ্গের পেঁচের মধ্যে যে পেশাব থাকে তা বের করে ফেলা ফরজ। (পুরুষাঙ্গের মধ্যে ১৮টি পেঁচ আছে। এ জন্য শেষ দিকের পেশাব একেবারে বের হয় না। বরং ফোঁটা ফোঁটা আসে। উক্ত পেশাব পু রুষাঙ্গের মাথায় জমে থাকলে তা থেকেই ৮০প্রকার মেহ রোগ হয়। যাঁরা নিয়মিত পেশাবে কুলুখ ব্যবহার করেন আল্লাহ তাঁদের এ রোগ থেকে হেফাজাত করেন।)
  • পেশাবখানায় যেয়ে বসুন।
  • কুলুখ এমন স্থানে ফেলুন যেন পেশাব আটকে দূর্গন্ধ না হয়।
  • ডান হাতে বদনা ধরুন।
  • বাম হাতের উপর পানি ঢালুন এবং অঙ্গ ধৌত করুন।
ধোয়ার সময় বিশেষভাবে লক্ষ্য রাখুনঃ
ক) পেশাব যদি এক দেরহাম অর্থাৎ হাতের তালু সোজা রাখলে যে পরিমান পানি থাকে সে পরিমানের বেশী অঙ্গে লেগে যায় তবে পানি দিয়ে ধোয়া ফরজ।
খ) এক দেরহাম পরিমান লাগলে ধোয়া ওয়াজিব।
গ) এক দেরহাম পরিমানের কম লাগলে ধোয়া ছুন্নাত।
ঘ) ছিদ্রের বাইরে না লাগলে ধোয়া মোস্তাহাব।
  • বাম হাত ভালভাবে ধুয়ে ফেলুন।
  • এবার উঠুন। উঠার সময় কাপড় ছেড়ে দিয়ে উঠুন। উঠে কাপড় ছাড়বেন না।
  • পেশাবখানা হতে বের হতে প্রথমে ডান পা দিন।
  • পড়ুনঃ

আলহামদু লিল্লাহি আখরাজা আননি মা ইউজিনী অ আবক্বা মা তানফাআনী।

অর্থঃ আল্লাহ তাআ’লার সকল প্রশংসা যিনি আমার শরীর থেকে ক্ষতিকারক জিনিষ বের করে দিয়েছেন এবং উপকারী জিনিষ বাকী রেখেছেন।

  • এরপর বাম পা দিন।
  • এরপর অজু করুন।

তথ্যসূত্র

  • নামাজ প্রশিক্ষণ (লেখকঃ মাহবুবুর রহমান, প্রাক্তন উপাধ্যক্ষ, প্রতাপনগর আবূবকর সিদ্দিক ফাজিল মাদ্রাসা, সাতক্ষীরা)