এই সুন্নিপিডিয়া ওয়েবসাইট পরিচালনা ও উন্নয়নে আল্লাহর ওয়াস্তে দান করুন
বিকাশ নম্বর ০১৯৬০০৮৮২৩৪

ঈদে মিলাদুন্নবী (সঃ) * কারবালার ইতিহাস * পিস টিভি * মিলাদ * মাযহাব * ইলমে গায়েব * প্রশ্ন করুন

বই ডাউনলোড

মান্নতের রোযা

From Sunnipedia
Jump to: navigation, search
  • মাসআলাঃ

যদি কেহ কোন ইবাদতের (অর্থাৎ নামায, রোযা, ছদ্‌কা ইত্যাদির) মান্নত করে, তবে তাহা পুরন করা ওয়াজিব হইয়া যাইবে। যদি না করে, তবে গোনাহ্‌গার হইবে।

  • মাসআলাঃ

মান্নত দুই প্রকার।

প্রথম- দিন তারিখ ঠিক করিয়া মান্নত করা ।
দ্বিতীয়- অনির্দিষ্টরুপে মান্নত করা ।

ইহার প্রত্যকটি আবার দুই প্রকার

(১) শর্ত করিয়া মান্নত করা । যেমন বলিল, যদি আমার অমুক কাজ সিদ্ধ হয়, তবে আমি ৫০ টাকা আল্লাহ্‌র রাস্তায়দান করিব।
(২)- বিনা শর্তে শুধু আল্লাহ্‌র নামে মান্নত করা । যেমন বলিল, আমি আল্লাহ্‌র নামে পাঁচটি রপযা রাখিব। মোটকথা, যেরুপই মান্নত করুক না কেন, নির্দিষ্ট হউক বা অনির্দিষ্ট হউক, শর্তসহ হউক বা বিনাশর্তে হউক আল্লাহ্‌র নাম উল্লেখ করিয়া যবানে মান্নত করিলেই তাহা ওয়াজিব হইয়া যাইবে।(অবশ্য শর্ত করিয়া মান্নত করিলে যদি সেই শর্ত পাওয়া যায়, তবে ওয়াজিব হইবে ; অন্যথায় ওয়াজিব হইবে না।)

(মাসআলাঃ যদি কেহ বলে, আয় আল্লাহ্‌! আজ যদি আমার অমুক কাজ হইয়া যায়, তবে কালই আমি আপনার নামে একটা রোযা রাখিব, অথবা বলে, হে খোদা! আমার অমুক মকছুদ পূর্ণ হইলে আমি পরশু শুক্রবার আমি আপনার নামে একটা রোযা রাখিব। এরুপ মান্নত এ যদি রাত্রে রোযার নিয়্যত করে, তবুও দুরুস্ত আছে । আর যদি রাত্রে না করিয়া দ্বিপ্রহরের এক ঘন্টা পূর্বে নিয়্যত করে, তাহাও দুরুস্ত আছে এবং মান্নত আদায় হইয়া যাইবে।)

  • মাসআলাঃ

মান্নত করিয়া যে জুমু’আর দিন নির্দিষ্ট করিয়াছে, সেই জুমু’আর দিনে রোযা রাখিলে যদি মান্নতের রোযা বলিয়া নিয়্যত না করে, শুধু রোযার নিয়্যত করে, অথবা নফল রোযা রাখার নিয়্যত করে, তবুও নির্দিষ্ট মান্নতের রোযা আদায় হইয়া যাইবে । অবশ্য যদি ঐ তারিখে ক্বাযা রোযার নিয়্যত করে এবং মান্নতের রোযার কথা মনে না থাকে, অথবা মনে ছিল কিন্তু ইচ্চছা করিয়া ক্বাযা রোযা রাখিয়াছে, তবে ক্বাযা রোযাই আদায় হইবে, মান্নত আদায় হইবে না; মান্নতের রোযা অন্য আর একদিন ক্বাযা করিতে হইবে।

  • মাসআলাঃ

দ্বিতীয় মান্নত এই যে, যদি দিন তারিখ নির্দিষ্ট করিয়া মান্নত না করে, শুধু বলে যে, যদি আমার অমুক কাজ হইয়া যায়, আমি আল্লাহ্‌র নামে পাঁচটি রোযা রাখিব, অথবা শর্ত না করিয়া শুধু বলে, আমি আল্লাহ্‌র নামে পাঁচটি রোযা রাখিব, তবুও পাঁচটি রোযা রাখা ওয়াজিব হইবে; কিন্তু যেহেতু কোন দিন তারিখ নির্দিষ্ট করে নাই, কাজেই যে কোন দিন রাখিতে পারিবে কিন্তু নিয়্যত রাত্রে করাই শর্ত। ছোব্‌হে ছাদেকের পর মান্নতের রোযার নিয়্যত করিলে এইরূপ অনির্দিষ্ট মান্নতের রোযা আদায় হইবে না এবং এই রোযা নফল হইয়া যাইবে।

তথ্যসূত্র

  • বেহেস্তী জেওর (লেখকঃ মাওলানা আশরাফ আলী থানবী (রহঃ))