হযরত মোজাদ্দেদে আলফে সানী (রহঃ) - জন্ম ও পরিচয়

From Sunnipedia
Jump to: navigation, search

ঈসায়ী ১৫৬১ খৃষ্টাব্দ, মুতাবিক ৯৭১ হিজরীর ১৪ই শাওয়াল, শুক্রবার দিনগত রাতে ইমামে-রাব্বানী, মুজাদ্দিদে আলফে সানি শায়খ আহমদ ফারুকী সিরহিন্দী (রহ:) জন্ম গ্রহণ করেন। তাঁর কুনিয়াত ছিল- আবুল বারাকাত, লকব ছিল-বদরুদ্দিন এবং তিনি প্রথম কাইউমরূপে পরিচিত।

একজন প্রসিদ্ধ ওলী, হযরত শায়খ আহমদ জাম (রহ:) প্রায় চার শত বছর আগে এ পূণ্যময় সন্তানের নামকরণ করেন ‘আহমদ’। তাঁর জন্মের সময় তাঁর জননী যে গায়েবী আওয়ায শুনেছিলেন, তা ছিল এরূপ। ফলে নবজাত শিশুর নাম রাখা হয়। ‘শায়খ আহমদ’। হযরত ইমামে রাব্বানী, মুজাদ্দিদে আলফে সানী (রহ:)-এর পিতার নাম হযরত শায়খ আব্দুল আহাদ (রহ:)। তিনি ছিলেন মুসলিম জাহানের দ্বিতীয় খলীফা হযরত উমর (রা.)-এর সাতাশ তম (২৭) অধস্তন পুরুষ, এ পর্যায়ে হযরত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলায়হি ওয়াসাল্লামের দু‘আ উল্লেখযোগ্য। যিনি দু‘আ করেন :

হে আল্লাহ্! উমর ইবন খাত্তাব অথবা আবু জেহেলের দ্বারা দ্বীন ইসলামকে শক্তিশালী করুন।

মহানবী (স.)-এর এ দু‘আ হযরত উমর ফারুক (রা) কর্তৃক বাস্তবে রূপায়িত হয় এবং তাঁর খিলাফতকালে দ্বীন ইসলাম উন্নতির চরম শিখরে পৌঁছে । রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলায়হি ওয়াসাল্লামের ইন্তিকালের হাজার বছর পর যখন সমস্ত পৃথিবী পুনরায় শিরক, বিদ্‘আত ও কুফরীতে ভরপুর হয়ে যায়, তখন হযরত উমর (রা)-এর বংশধর হযরত মুজাদ্দিদে আলফে সানী (রহ:) দ্বারা দ্বীন-ইসলাম পুনরায় শিরক-বিদ্‘আত থেকে মুক্ত হয়।

হযরত মুজাদ্দিদে আল্ফে সানী (রহ:)-এর পিতা হযরত শায়খ আব্দুল আহাদ (রহ:) হিজরী ১০০৭ সালে, ১৭ই রজব ৮০ বছর বয়সে ইনতিকাল করেন। সিরহিন্দ শরীফের উত্তর দিকে তাঁর মাযার রয়েছে।

তথ্যসূত্র

  • মুজাদ্দিদ-ই-আলফে সানী (রহঃ) জীবন ও কর্ম (লেখকঃ ডক্টর আ. ফ. ম. আবু বকর সিদ্দীক)